তারুণ্যের অনুপ্রেরণা রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববি

এম নজরুল ইসলামঃ ১৯৭৫ সালের রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের ২১ বছর পর ১৯৯৬ সালে প্রথমবারের মতো সরকার পরিচালনায় দায়িত্ব পেয়েছিলেন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা। যিনি বর্তমানে চতুর্থবারের মতো বাংলাদেশের সরকারপ্রধান। অবশ্য এ জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছে ২১ বছর। ১৯৮১ সালে সামরিক শাসকদের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে তিনি ফিরেছিলেন দেশে। বৃহৎ ত্যাগ ছাড়া কোনো মহৎ অর্জন সম্ভব নয়। স্বাধীন বাংলাদে...

রাদওয়ান মুজিব: বঙ্গবন্ধুকে শিশুদের মানসপটে তুলে আনার নেপথ্য কারিগর

তন্ময় আহমেদঃ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দৌহিত্র রাদওয়ান মুজিব, ১৯৭৫ সালে দেশদ্রোহীদের হাতে বঙ্গবন্ধু সপরিবারের হত্যাকাণ্ডের শিকার হওয়ার সময় ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান তার একমাত্র খালা জননেত্রী শেখ হাসিনা ও তার মা শেখ রেহানা। এরপর দীর্ঘদিন নির্বাসিত জীবন কাটাতে হয় তাদের। নিত্যদিনের সংকট ও দুর্ভোগকে সঙ্গী করে কাটাতে হয়েছে বঙ্গবন্ধুর জীবিত দুই কন্যা ও দৌহিত্রদের কৈশোর-তার...

শেখ হাসিনাঃ অগ্রযাত্রার অগ্রদূত

বাঙালি জাতির হাজার বছরের শৃঙ্খলমুক্তি ঘটেছে যার নেতৃত্বে, সেই মহান মানুষটির নাম বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। দীর্ঘ দুই যুগের সংগ্রাম শেষে, ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ চূড়ান্তভাবে স্বাধীনতার ঘোষণা দেন তিনি। প্রাণ বাজি রেখে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে আপামর বাঙালি। 'জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু' ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে পড়ে ৫৫ হাজার বর্গমাইলের এই রণাঙ্গণ। ৯ মাস যুদ্ধ শেষে, ১৬ই ডিসেম্বর বিশ্বের ব...

নতুন প্রজন্ম দেশের সঠিক ইতিহাস সম্পর্কে অনেক সচেতনঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ইতিহাস থেকে বারবার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাম মুছে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছে এবং এভাবে জাতি ১৯৭৫ সালের পরের প্রকৃত ইতিহাস জানা থেকে বঞ্চিত হয়েছে। তিনি বলেন, ‘এখন তা আর পারবেনা কারণ নতুন প্রজন্ম ইতিহাস সম্পর্কে অনেক সচেতন।’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বিকেলে ধানমন্ডি ৩২-এ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর...

বঙ্গবন্ধুর ১৬টি ঈদ কেটেছে কারাগারে

অজয় দাশগুপ্ত: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জীবনের ১৬ টি ঈদ কাটিয়েছেন কারাগার ও ক্যান্টনমেন্টের বন্দী জীবনে। ‘কারাগারের রোজনামচা গ্রন্থে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৬৭ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সময়ের কথা লিখেছেন এভাবে: ১১ তারিখে রেণু এসেছে ছেলেমেয়ে নিয়ে দেখা করতে। আগামী ১৩ ই জানুয়ারি ঈদের নামাজ। ছেলেমেয়েরা ঈদের কাপড় কিনবে না। ঈদ করবে...

ডিজিটাল বাংলাদেশ: বঙ্গবন্ধুর রাষ্ট্রদর্শন থেকে অনুপ্রাণিত শেখ হাসিনার দীর্ঘ পথপরিক্রমা

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার লেখা 'স্ট্রাইভিং টু রিয়ালাইজ দ্যা আইডিয়ালস অব মাই ফাদার' শিরোনামে লেখা সেই প্রবন্ধের শুরুতেই স্মৃতিচারণ করেছেন তার পিতার এক মর্মস্পর্শী উদ্ধৃতি দিয়ে। স্বাধীনতার পর দেশের প্রধানমন্ত্রী হয়েও বঙ্গবন্ধু তার পরিবারকে কতোটা সাধারণ জীবন যাপনে উদ্বুদ্ধ করতেন, তারই প্রতিফলন ঘটেছে এই স্মৃতিচারণায়।

বর্তমান সরকারের টানা তিন মেয়াদে উন্নয়নের সব সূচকে বাংলাদেশ অভূতপূর্বভাবে এগিয়েছে: মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বর্তমান সরকারের টানা তিন মেয়াদে গত সাড়ে তেরো বছরে উন্নয়নের সব সূচকে বাংলাদেশ অভূতপূর্বভাবে এগিয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, বর্তমান সরকারের নেওয়া মেগা-প্রকল্পগুলো দ্রুত এগোচ্ছে। আমরা সফলভাবে করোনা মহামারি মোকাবিলা করেছি। দারিদ্র্যের হার ২০.৫ শতাংশের নিচে নামিয়েছি। শতভাগ মানুষকে বিদ্যুৎ সুবিধা দিচ্ছি। জঙ্গি-সন্ত্রাস ও দুর্নীতি নির্মূলে &...

নিউইয়র্ক টাইমসকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বঙ্গবন্ধুর বর্ণনায় তাঁর গ্রেফতার ও বিচার

১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ কালরাতে নিরস্ত্র বাঙালির ওপর ট্যাংক-কামান ও মেশিনগানসহ অত্যাধুনিক সব অস্ত্র নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে পাকিস্তানী সৈন্যরা। আক্রমণের শুরুতেই তারা বঙ্গবন্ধুকে ধানমন্ডি ৩২ নং সড়কের বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে। সাড়ে নয় মাস পাকিস্তানের বিভিন্ন জেলে আটক ছিলেন বঙ্গবন্ধু। মৃত্যুর মুখোমুখি হয়েছেন একাধিকবার। ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি দেশে ফেরার পরের সপ্তাহে বঙ্গবন্ধু বিদেশী...

মুক্তিযুদ্ধ ছিলো অপরিহার্য

আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতির জন্য দু’টি বিষয় জরুরি ছিল। প্রথমত যারা এই রাষ্ট্র গঠন করেছে তাদের প্রমাণ করতে হবে তারা বিচ্ছিন্নতাবাদী নয় এবং দ্বিতীয়ত রাষ্ট্র নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে কি না? কোনো গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের জন্য অন্য একটি গণতান্ত্রিক নতুন রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দিতে গেলে প্রথমেই দেখতে হয় যারা নতুন রাষ্ট্র গঠন করেছেন বলে দাবি করছেন, তারা বিচ্ছিন্নতাবাদী কি না?...

পাকিস্তানকে গণহত্যা ও যুদ্ধের দায় শোধ করতে হবে

প্রধানত দুটি কারণে পাকিস্তান দায় এড়াতে পারবে না। প্রথমত, এই যুদ্ধে স্পষ্টতই পাকিস্তান আগ্রাসী রাষ্ট্র। কারণ সম্পূর্ণ অন্যায় ও অযৌক্তিকভাবে তারাই প্রথম যুদ্ধ ঘোষণা এবং শুরু করেছে। আমরা বাংলাদেশের মানুষ বাধ্য হয়ে প্রতিরোধ যুদ্ধ গড়ে তুলি এবং আক্রমণকারী দখলদার বাহিনীকে পরাস্ত করে দেশ স্বাধীন করি। দ্বিতীয়ত, বিনা উসকানিতে হাজার হাজার গ্রামগঞ্জে নিরস্ত্র-নিরীহ মানুষকে হত্যা এবং ত...

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণা

২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস। বাংলাদেশ সৃষ্টির পর থেকে প্রতি বছর ২৬ মার্চকে যথেষ্ট ভাবগাম্ভীর্যপূর্ণ পরিবেশে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় পালন করে থাকে সমগ্র বাঙালী জাতি। আবার ১৯৭১ সালে আজকের এ দিনেই অর্থাৎ ২৫ মার্চের প্রথম প্রহরে বাঙালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালীর স্বাধীনতা ঘোষণা করেন। দেশব্যাপী বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতার ঘোষণাকে প্রচারের নিমিত্তে যোগাযোগের সকল মাধ্য...

২৫ মার্চ জাতীয় গণহত্যা দিবসঃ ভয়াল কালরাত্রির গণহত্যা

মানব ইতিহাসের অন্যতম বর্বর নিষ্ঠুরতম গণহত্যার একটি রাত। একাত্তরের ২৫শে মার্চের সেই রাত। গভীর রাতের নিস্তব্ধতার মধ্যে হঠাৎই ট্যাংকের গর্জন শুনতে পায় শহরবাসী। পাখির ডাক নয়, বাংলাদেশ তথা তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের লাখ লাখ জনসাধারণ জেগে ওঠে অনবরত গোলাগুলির শব্দে। বিশ্ব ইতিহাসের নৃশংসতম এবং বৃহত্তম এক গণহত্যার সূচনা হয় এভাবেই, যা পরিচালনা করেছিল তৎকালীন পাকিস্তানের সাম...

বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতার ঘোষণা এবং বাংলাদেশ রাষ্ট্রের জন্ম

১৯৭০ সালের জাতীয় নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়লাভ করে আওয়ামী লীগ। ফলে বাঙালি জাতির মুক্তির সংগ্রাম বেগবান হয়। ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের জনসভায় মুক্তিযুদ্ধের প্রস্তুতি নেওয়ার চূড়ান্ত নির্দেশনা দেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ২৩ মার্চ ধানমন্ডির নিজ বাসভবনে স্বাধীন বাংলাদেশের মানচিত্র-খচিত পতাকা উত্তোলন করেন তিনি। দেশজুড়ে উড়তে থাকে লাল-সবুজ...

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব

বিশ্বজিত ঘোষঃ পূর্ববাংলার পশ্চাৎপদ মুসলিম জনগোষ্ঠীকে উচ্চশিক্ষায় আকৃষ্ট করা এবং বাংলায় ব্রিটিশ শাসন ব্যবস্থা সুদৃঢ় করার উদ্দেশ্যে ১৯২১ খ্রিস্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের আদর্শে পরিকল্পিত এই বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পর থেকেই বহু গুণী মানুষের সান্নিধ্যে ধন্য হয়ে ওঠে। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠতম বাঙালি, বাংলাদেশের স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাত...

জেনেভায় বঙ্গবন্ধু

ওয়ালিউর রহমানঃ ১৯৭২ সালে মার্চের শেষে জেনেভায় যাওয়ার আগে হঠাৎ বঙ্গবন্ধুর একটি টেলিফোন পেলাম। তিনি বললেন, ইন্টারন্যাশনাল ক্রাইমস ট্রাইব্যুনাল এ্যাক্টের একটি ড্র্যাফট পাঠালাম, তুই একটু দেখতো। এই মহান মানুষটি সম্পর্কে যখন লিখতে যাই তখন কেমন জানি আনমনা হয়ে যাই। হারিয়ে যাই সেই অতীতের স্মৃতিতে। তখন চোখ দুটি অশ্রুতে ছল ছল করে ওঠে। এই মহান মানুষটিকে একনজর দেখার জন্য দূ...

মুক্তিযুদ্ধে জিয়ার রেডিও বিবৃতি ও কিছু কথা

মোহাম্মদ শাহাবুদ্দিন: ২৫শে মার্চ ১৯৭১। রাত ১১ টা ৪৫ মিনিট। পাকিস্তানি দখলদার বাহিনী সর্বশক্তি নিয়ে অতর্কিতভাবে নিরস্ত্র বাঙালির ওপর ঝাঁপিয়ে পড়লো। আক্রান্ত মানুষের আর্তচিৎকার, কামানের আওয়াজ, রকেট লাঞ্চার আর ট্রেসার বুলেটের আগুনের ঝলকানিতে সমগ্র ঢাকা নগরী পরিণত হলো নরকের বিভীষিকা। এমনই মুহূর্তে বঙ্গবন্ধু গোপন ট্রান্সমিটারের মাধ্যমে বলধা গার্ডেন থেকে অথবা মগবাজার বঙ্গবন্...

ভাষা আন্দোলনের ৭০ বছরে কোথায় আছে বাংলা

সাদিকুর রহমান পরাগ: সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী পালন করছি। সেই সঙ্গে আমরা পালন করছি স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী। জাতীয় জীবনের এই দুই আনন্দঘন উপলক্ষের মধ্যে পূর্ণ হলো ভাষা আন্দোলনের ৭০ বছর। যেখানে আমার মায়ের ভাষায় কথা বলার অধিকার কেড়ে নিতে চাওয়া হয়েছিল, সেখানে সেই অপচেষ্টাকে রুখে দিয়ে আমরা পেরিয়ে এসেছি ৭০টি বছর।...

বিশ্ব মিডিয়ায় বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণার খবর

বিশ্ব মিডিয়ায় বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণার খবর

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে টুঙ্গিপাড়ায় ৮দিন ব্যাপী কর্মসূচি বাস্তবায়নে প্রস্তুতি সভা

সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ-এর উদ্যোগে আগামী ১৮ মার্চ থেকে ২৫ মার্চ ২০২২ পর্যন্ত জাতির পিতার জন্মস্থান গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়ায় ৮দিন ব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি আয়োজন করা হয়েছে। সে লক্ষ্যে আজ ০৯ মার্চ ২০২২ বুধবার বিকাল ৩টায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডিস্থ র...

৭ই মার্চের ভাষণ কেন গুরুত্বপূর্ণ এবং কী কারণে তা প্রায় ২১ বছর নিষিদ্ধ করে রেখেছিল সামরিক-অগণতান্ত্রিক শাসকরা

৭ মার্চ ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের উত্তাল জনসমুদ্রে এক ঐতিহাসিক ভাষণের মাধ্যমে স্বাধীনতার চূড়ান্ত রণ-প্রস্তুতির নির্দেশনা দেন আওয়ামী লীগ প্রধান শেখ মুজিবুর রহমান। যার ধারাবাহিকতায় পাকিস্তানিদের হাত থেকে শাসনব্যবস্থার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় বাঙালি জাতি, প্রস্তুত হতে থাকে মুক্তিযুদ্ধের জন্য। এরপর ২৫ মার্চ রাতে পাকিস্তানিরা যখন অত্যাধুনিক অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে নিরস্ত্র মানুষের ওপর হা...

ছবিতে দেখুন

ভিডিও