উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে শেখ হাসিনার পাশে থাকতে হবে

899

Published on ফেব্রুয়ারি 28, 2022
  • Details Image

দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে শেখ হাসিনার পাশে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি।

রবিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) পিরোজপুর সদর উপজেলার শিকদারমল্লিক ইউনিয়নের দক্ষিণ গাবতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত উন্নয়ন সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ আহ্বান জানান।

পিরোজপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক চৌধুরী রওশন ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে পিরোজপুরের স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আব্দুস সাত্তার হাওলাদার, পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাসুদুজ্জামান, পিরোজপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার ও জেলা আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সম্পাদক গৌতম নারায়ণ রায় চৌধুরী, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য কামরুজ্জামান খান শামীম, পিরোজপুর সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এস এম বায়েজীদ হোসেন, জেলা যুবলীগের সহসভাপতি জাহিদ হোসেন পিরু, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি চান মিয়া মাঝি, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক গোপাল বসু, জেলা আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের আহ্বায়ক শিকদার চানসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী আরো বলেন, "বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার জন্য দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে উন্নয়ন হচ্ছে। তিনি না থাকলে পদ্মা সেতু তৈরি হতো না, রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ-কালভার্ট, স্কুল ভবন নির্মাণ হতো না। তিনি না থাকলে দক্ষিণাঞ্চলসহ উন্নয়নবঞ্চিত অঞ্চলের উন্নয়ন হতো না"।

কেন শেখ হাসিনার সাথে থাকবেন না এই প্রশ্ন রেখে এ সময় মন্ত্রী আরো বলেন, "শেখ হাসিনা করোনার সময় ত্রাণ পৌঁছে দিয়েছেন, বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষকে নগদ প্রণোদনা দিয়েছেন, ভ্যাকসিন পৌঁছে দিয়েছেন। তিনি বাড়ি বাড়ি বিদ্যুৎ পৌঁছে দিচ্ছেন, রাস্তাঘাট, ব্রিজ-কালভার্ট করে দিচ্ছেন। মসজিদ-মন্দিরের উন্নয়নে ভূমিকা রাখছেন। তিনি শিক্ষার্থীদের বিনা বেতনে পড়াচ্ছেন, বিনামূল্যে বই সরবরাহ করছেন। তিনি নারীর ক্ষমতায়নে কাজ করে যাচ্ছেন। অতীতে খালেদা জিয়াও প্রধানমন্ত্রী ছিলেন অনেকবার। তিনি এ ধরনের কর্মসূচি নেননি। যিনি উন্নয়ন করেছেন তার সাথেই থাকতে হবে, যার কাছে নিরাপদ আশ্রয় তাকেই ভালবাসতে হবে"।

শ ম রেজাউল করিম আরো বলেন, "প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন দেশে একজন লোকও গৃহহীন থাকবে না। এ সাহস অনেক দেশের মানুষই দেখাতে পারেনি, বাংলাদেশেও ৫০ বছরে কেউ দেখাতে পারেনি যেটা শেখ হাসিনা দেখিয়েছেন। দেশ স্বাধীন না হলে এটা সম্ভব হতো না। স্বাধীনতার জন্য যে বীর মুক্তিযোদ্ধারা ত্যাগ স্বীকার করেছেন একসময় তারা অবহেলায় ছিলেন। শেখ হাসিনা করোনার মধ্যেও মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বাড়িয়েছেন। অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বীর নিবাস করে দিচ্ছেন"।

তিনি আরো যোগ করেন, "বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর দেশে স্বাধীনতাবিরোধী, রাজাকারদের প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল। শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করে দেখিয়েছেন বাংলাদেশে রাজাকারদের ঠাঁই হবে না। তবে মনে রাখতে হবে আবার স্বাধীনতাবিরোধীরা যেন মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে না পারে। শেখ হাসিনা দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের জন্য পদ্মা সেতু দিয়েছেন। যিনি আমাদের ভালোবাসেন, সুখ-দুঃখ বুঝেন, তার উপরই নির্ভর করা যায়। শেখ হাসিনা থাকলে আমাদের সব ঠিক থাকবে। আর তিনি না থাকলে আবার তাসের ঘরের মতো উন্নয়নের অগ্রযাত্রা নষ্ট হয়ে যাবে। শেখ হাসিনা বাঙালি জাতির জন্য আশীর্বাদ"।

এর আগে মন্ত্রী পিরোজপুর সদর উপজেলার শিকদারমল্লিক ইউনিয়নে পাঁচপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, গণকপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও দক্ষিণ গাবতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নবনির্মিত ভবন এবং দক্ষিণ জয়পুর রাস্তায় খালের উপর নির্মিত আরসিসি গার্ডার ব্রিজ উদ্বোধন করেন।

Live TV

আপনার জন্য প্রস্তাবিত