রাজশাহী'র পুঠিয়ায় শোক দিবসের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

1017

Published on আগস্ট 28, 2022
  • Details Image

১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার (২৬ আগস্ট,২০২২ খ্রি.) বিকেলে পুঠিয়া পিএন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে পুঠিয়া উপজেলা যুবলীগ এই শোক সভার আয়োজন করে।

পুঠিয়া উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম রবির সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে মূল্যায়ন বক্তৃতা রাখেন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও রাজশাহী-৫ (পুঠিয়া-দুর্গাপুর) আসনের দুইবারের সাবেক সংসদ সদস্য জননেতা আলহাজ্ব মোঃ আব্দুল ওয়াদুদ দারা ।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ আলহাজ্ব এস.এম. একরামুল হক, সহ-সভাপতি জাকিরুল ইসলাম সান্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড.মোঃ আব্দুস সামাদ, দপ্তর সম্পাদক প্রদ্যুৎ কুমার সরকার, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক মোঃ মাহবুবুর রহমান, উপ-দপ্তর সম্পাদক মোঃ আব্দুল মান্নান, সদস্য অধ্যক্ষ মোঃ গোলাম ফারুক, জেলা আ’লীগের সদস্য ও পুঠিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জিএম হিরা বাচ্চু, দুর্গাপুর উপজেলা আ’লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আব্দুল মান্নান ফিরোজ এবং সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মোঃ মোজাম্মেল হক, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মৌসুমি রহমান, পুঠিয়া উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি রাজিবুল হক রাজিব সহ পুঠিয়া উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাবেক সাংসদ ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল ওয়াদুদ দারা ১৫ই আগস্টে নিহত সকলের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, জাতির পিতাসহ ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট তার পরিবারের প্রায় সবাইকে একযোগে হত্যা করা হয়েছিল। এই প্রজন্মের সবাইকে বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনী পড়া উচিত। এমনি বড় ছোট সবাইকেই বঙ্গবন্ধুকে জানা উচিত। বাংলাদেশ বিনির্মাণে তাঁর যে অবদান, তা বলে শেষ করা যাবেনা।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অধ্যক্ষ আলহাজ্ব এস.এম. একরামুল হক, পুঠিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান জি.এম. হিরা বাচ্চু এবং অধ্যক্ষ গোলাম ফারুক প্রমুখ।

মোঃ আব্দুল ওয়াদুদ দারা বলেন বঙ্গবন্ধুর কালজয়ী ভাষণ আমাদের রক্তকে উদ্দীপ্ত করেছিল। বঙ্গবন্ধুর সেই বজ্রকণ্ঠকে ঝাঁঝরা করে দিয়েছিলো কিছু কাপুরুষের বুলেট। যাদেরকে বাংলাদেশী বা বাঙালি বলা যাবেনা। আরও দুঃখের বিষয় সেই খুনের দায়মুক্তি দেয়া হয়েছিলো। অর্থাৎ এই হত্যাকাণ্ডের কোনো বিচার করা হয়নি, এরচেয়ে কষ্টের আর কি থাকতে পারে! এরপর বর্তমান প্রধানমন্ত্রী এই হত্যার বিচার করেছেন। এখনো যারা দেশের বাইরে পালিয়ে আছেন তাদেরকে দেশে এনেও বিচারের দাবি জানান তিনি।

Live TV

আপনার জন্য প্রস্তাবিত