নীলফামারী জেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

644

Published on এপ্রিল 2, 2022
  • Details Image

নীলফামারীতে আওয়ামী লীগের এক বিশেষ অর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) নীলফামারী জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে দুপুর ১২টায় বিশেষ বর্ধিত সভা শুরু হয়। যা চলে রাত ১টা পর্যন্ত। 

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক (রংপুর বিভাগ দায়িত্ব) সাখাওয়াত হোসেন শফিক। 

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ’এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হক’এর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য সাবেক সংসদ সদস্য হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া। 

আয়োজিত বর্ধিত সভায় ৬ উপজেলা, ৪ পৌরসভা, ৬০ ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং ইউপি নির্বাচনে মনোনিত চেয়ারম্যান প্রার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। সভায় উপস্থিত নেতাকর্মীরা তাদের সমস্যা ও মতামত তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন। 

বর্ধিত সভায় সকল উপজেলা থেকে আগত নেতৃবৃন্দগন সাংগঠনিক রিপোর্ট পেশ করেন এবং যে সকল উপজেলার কমিটি মেয়াদ উর্তিন্ন সে সকল উপজেলায় অতিদ্রুত সম্মেলন করার জন্য জেলা কে নির্দেশ দেওয়া হয়।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক (রংপুর বিভাগ দায়িত্ব) সাখাওয়াত হোসেন শফিক বলেন, যারা আওয়ামী লীগ করে তারা বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতার আদর্শের সৈনিক। তাই সকল ভূল বুঝাবুঝির অবসান ঘটিয়ে তৃণমূল পর্যায়ে সংগঠনকে শক্তিশালী করাই একমাত্র লক্ষ্য হবে। দল ও নিজেদের মধ্যে বিভেদ ও সংঘাত এড়াতে হবে। 

তিনি বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের প্রতি ধাপে দলীয় প্রার্থীদের ফলাফল খারাপ হয়েছে। যা ক্রমবর্ধমান দ্বন্দের আরও ক্ষতিকর একটি দিক। এতে দলের জনপ্রিয়তা কমে যাওয়ার বিষয়টি উন্মোচিত হয়েছে। বিদ্রোহী প্রার্থীদের সমর্থনের জন্য স্থানীয় পর্যায়ে বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মীকে বহিষ্কার করায় তৃণমূলের শক্তি দুর্বল হয়ে পড়েছে বলেও মনে করছেন বিএনপি ও অপশক্তিরা। বাস্তবে যারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক নয়, যারা দলের সভাপতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আদেশ উপেক্ষা করেছে, যারা দেশকে ভালোবাসে না তাদের চিহিৃত করে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। যারা বিদ্রোহী প্রার্থীদের পৃষ্ঠপোষকতা দিয়েছে তাদের ইতিমধ্যেই তাদেরকে চিহ্নিত করা হয়েছে। কমিটির রিপোর্টের ভিত্তিতে আমরা পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করবো। 

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে উপস্থিত সকলকে হুসিয়ারি দিয়ে বলেন, দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দল ও নিজেদের আরও শক্তিশালী করে তুলতে হবে। তাই জেলা, উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে সকল নেতাকর্মীদের এখন থেকে মাঠ পর্যায়ে কাজ করার আহবান এবং যেসকল ইউনিয়ন কমিটি, ওয়ার্ড কমিটি, পৌরসভা ওয়ার্ড কমিটি গঠন হয়নি দ্রুত তা গঠনের জন্য জেলার নেতৃবৃন্দদের নির্দেশ দেন। 

Live TV

আপনার জন্য প্রস্তাবিত