বগুড়ার শেরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

283

Published on মার্চ 28, 2022
  • Details Image

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন বলেছেন, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা মেজর জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষক নন, তিনি ছিলেন পাকিস্তানের এজেন্ট। তার স্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াও পাকিস্তানের স্বার্থ রক্ষায় কাজ করেছেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যখন যুদ্ধবির্ধ্বস্ত বাংলাদেশকে উন্নয়ন ও অগ্রগতির দিকে নিয়ে যাচ্ছিলেন ঠিক তখনী মুক্তিযুদ্ধের পরাজিত শক্তি ও অতিবিপ্লবীরা তাকে সপরিবারে হত্যা করেন। তাই কু-চক্রী ওই মহলটির কর্মকান্ড সম্পর্কে সজাগ থাকতে হবে। যাতে করে আর কোনো দিন ক্ষমতায় আসতে না পারে।

সোমবার দুপুরে বগুড়ার শেরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুস সাত্তারের সভাপতিত্বে শহরের টাউন ক্লাব পাবলিক লাইব্রেরী মহিলা অর্নাস কলেজ প্রাঙণে আয়োজিত সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন এসএম কামাল হোসেন। সকালে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্যদিয়ে  ত্রি-বার্ষিক ওই সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন বগুড়া জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ মজিবর রহমান মজনু। আর প্রধান বক্তা ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু।

উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সুলতান মাহমুদের সঞ্চালনায় উক্ত সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সৈয়দ আব্দুল আউয়াল শামীম, বগুড়া-৫ (শেরপুর-ধুনট) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ হাবিবর রহমান, বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি প্রদীপ কুমার রায়, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আসাদুর রহমান দুলু,দপ্তর সম্পাদক আল রাজী জুয়েল, সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ শাহাদাত আলম ঝুনু, এ্যাড-জাকির হোসেন নবাব, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সুলতান মাহমুদ খান রনি, এছাড়া স্থানীয় উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা এড. গোলাম ফারুক, মুনসী সাইফুল বারী ডাবলু, শাহজামাল সিরাজ, বদরুল ইসলাম পোদ্দার ববি, সারোয়ার রহমান মিন্টু, শামীম ইফতেখার শামিম, মকবুল হোসেন, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা রেজাউল করিম সিপ্লব, নূরে আলম সানি, ছাত্রলীগ নেতা আরিফুর রহমান শুভ, সোহেল রানা।

এদিকে সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে সভাপতি পদে পাঁচজন প্রার্থীর মধ্যে সমঝোতার ভিত্তিতে এ্যাড. গোলাম ফারুক শেরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হন। আর সাধারণ সম্পাদক পদে তিনজন প্রার্থীর মধ্যে সমঝোতা না হওয়ায় কাউন্সিলরদের ভোটগ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে। এতে ৪৫৪ জন কাউন্সিলর তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন বলে দলীয় সূত্রে জানিয়েছে। বিকেলে এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত পর্যন্ত ত্রি-বার্ষিক ওই সম্মেলনের কাউন্সিল অধিবেশন চলছিল।

Live TV

আপনার জন্য প্রস্তাবিত