খুলনা মহানগর ও খুলনা জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

643

Published on নভেম্বর 6, 2021
  • Details Image

শনিবার (৬ নভেম্বর) সকালে খুলনা হাদিস পার্ক ময়দানে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ খুলনা মহানগর ও খুলনা জেলার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। 

সম্মেলনের শুরুতে জাতীয় সংগীত পরিবেশন ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ। আর প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু।

সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল এমপি। মীর বরকত আলীর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সদস্য এ্যাড.আমিরুল আলম মিলন এমপি, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ সোহেল উদ্দিন, বাবু নারায়ন চন্দ্র এমপি, আক্তারুজ্জামান বাবু এমপি, গ্লোরিয়া ঝর্না সরকার এমপি, বাবু পঞ্চানন বিশ্বাস এমপি প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেছেন, বিএনপি জামাত অপশক্তি বার বার শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা করেছে। তার অপরাধ হলো, তিনি দেশের মানুষকে ভালোবাসেন। তিনি সব সময় দেশের মানুষকে নিয়ে ভাবেন। দেশের উন্নয়নের জন্য সব সময় চেষ্টা করেন।

তিনি বলেন, খুনি জিয়া-মোস্তাকরা ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যার পর চেয়েছিলো দেশকে পাকিস্তান বানাবে। তাই তারা দেশের গণতন্ত্রকে হত্যা করে ক্ষমতায় বসেছিলো। তারা দেশ থেকে মুক্তিযুদ্ধের সকল চেতনা মুছে ফেলতে চেয়েছে। বঙ্গবন্ধুর খুনিদের রাষ্ট্রের বড় বড় পদে বসিয়েছিলো। কিন্তু তারা সফল হয়নি। এখন তাদের দোসররা দেশকে নিয়ে, প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে আবার ষড়যন্ত্র করছে। তারাই সরকারি মদদে ২০০৪ সালের ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলা করে শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা করেছে।

বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, বিএনপি জামাত কখনো দেশের উন্নতি চায়না । তারা দেশেকে অস্থিতিশীল করতে চায়। তারা চায়না দেশের মানুষ একটু শান্তিতে থাকুক। কিছুদিন পূর্বে দূর্গাপূজার সময় তারা দেশে দাঙ্গা লাগানোর চেষ্টা করেছে। তারা হিন্দু ভাইদের বাড়ি ঘর,ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং মন্দিরে ব্যাপক হামলা চালিয়েছে। তারা চেয়েছিলো দাঙ্গা লাগিয়ে সারা দেশ অস্থিতিশীল করে ক্ষমতায় যাবে। কিন্তু তারা সফল হয়নি।

তিনি আরও বলেন, শেখ হাসিনা আজ বিশ্ব দরবারে সম্মানিত। সারা বিশ্ব আজ শেখ হাসিনাকে সন্মান করে। আজ সর্ব ক্ষেত্রে সারা বিশ্বে বাংলাদেশ এগিয়ে। বড় বড় বিশ্ব নেতারা আজ শেখ হাসিনার প্রশংসা করে। শেখ হাসিনা অনেক দেশের রাষ্ট্র প্রধানদের কছে আজ আইডল। সবাই শেখ হাসিনার উন্নতি শিকার করে শুধু দেশ বিরোধী অপশক্তি শিকার করে না।

করোনার সময় সারা দেশে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা কর্মিরা যে ভাবে মানুষকে সহযোগিতা করেছে তার জন্য তিনি তাদের ধন্যবাদ দিয়ে বলেন, করোনা কালে সারা বিশ্ব বিপর্যস্ত হয়েছিলো। সে সময় আপনারা যে ভাবে সর্ব দিক দিয়ে মানুষকে সহযোগিতা করেছেন তার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আপনারা করোনা কালে দেশের মানুষের লাশ দাফন করেছেন, চিতা দিয়েছেন, খাবার দিয়েছেন, ধান কেটে দিয়েছেন যা আর কেউ করেনি।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা কর্মিদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আপনারা হলেন শেখ হাসিনার শক্তি। তাই আপনাদের আগে নিজের ঘর গোছাতে হবে। তৃণমূলকে সংগঠিত করতে হবে। যোগ্য ব্যক্তিদের নেতৃত্বে আনতে হবে। সৎ এবং সাহসীদের দলে জায়গা দিতে হবে এবং বিএনপি জামাতের সকল ষড়যন্ত্র ধ্বংস করে দেশকে সুন্দর ও বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।

সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন বলেন, শেখ হাসিনা আজ দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন কিন্তু বিএনপি জামাত দেশের এ উন্নতি মেনে নিতে পারছেনা।তারা দেশকে নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র করছে। ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় খালেদা জিয়া মানুষের গণতন্ত্র কেড়ে নিয়েছিলেন। এখন বিদেশে বসে তাদের মূলহোতা তারেক রহমান এগুলোর নেতৃত্ব দিচ্ছেন। বিএনপি নেতারা সকাল বিকেল মিথ্যা বলে। তাদের সকাল শুরু হয় মিথ্যা কথা দিয়ে। দেশে অপপ্রচারের মূল হোতা হলেন ফখরুল -রিজভী।

Live TV

আপনার জন্য প্রস্তাবিত