কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

463

Published on আগস্ট 30, 2021
  • Details Image

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি বলেছেন, আওয়ামী লীগের ঐক্য বিনষ্ট করার জন্য বিএনপি-জামায়াত টাকা-পয়সার বিনিময়ে বিভিন্ন জায়গায় এজেন্ট নিয়োগ করেছে। তাদেরকে চিহ্নিত করতে হবে।

এমনকি বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যারা দল ও দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে অপপ্রচারে লিপ্ত তাদের বিরুদ্ধে কঠোর সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। প্রয়োজনে কেন্দ্রীয় টিম গঠন করে তদন্ত করা হবে এসব অপপ্রচারের ব্যাপারে। 

শনিবার (২৮ আগস্ট) কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের এক বিশেষ বর্ধিত সভায় জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, জনগণের অধিকার আদায়ের জন্য আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল। তাই আওয়ামী লীগের প্রতি জনগণের প্রত্যাশাও অনেক বেশি।  প্রধানমন্ত্রী ও জননেত্রী শেখ হাসিনা জনগণের প্রত্যাশা পূরণের লক্ষ্যে দিন-রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রীর সততা, দক্ষতা ও যোগ্য নেতৃত্বের কারণে বাংলাদেশের মানুষ ক্ষুধা, দারিদ্র্য ও দুর্নীতিমুক্ত উন্নত বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখছে। তিনি সংগঠনকে আরো শক্তিশালী করার ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, সংগঠনকে শক্তিশালী করতে ঐক্যের কোনো বিকল্প নেই। ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগকে কোনো অপশক্তি পরাজিত করতে পারে না।

কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরে দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা নেতৃত্বের কোন্দলের প্রতি ঈঙ্গিত করে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ একটি সুশৃঙ্খল সংগঠন। এই সংগঠন পরিচালনার জন্য সুনির্দিষ্ট গঠনতন্ত্র রয়েছে। গঠনতন্ত্রের বাইরে গিয়ে সংগঠন পরিচালনার সুযোগ নাই। সভানেত্রীর প্রতিটি নির্দেশনা সবাইকে গুরুত্ব সহকারে মেনে চলতে হবে। তিনি শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীদের বিষয়ে অত্যন্ত কঠোর মনোভাব পোষণ করেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে দলীয় নেতাদের চরিত্র হননের হাতিয়ার হিসাবে ব্যবহার করা যাবে না বলেও তিনি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। আগামী সেপ্টেম্বর মাসের প্রথম তারিখ থেকে ওয়ার্ড, ইউনিয়ন ও উপজেলা পর্যায়ের সাংগঠনিক কার্যক্রম শুরু করা হবে বলে জানান তিনি।

কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মেয়র মুজিবুর রহমানের সঞ্চলনায় অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তৃতা করেন কেন্দ্রীয় ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা।

তিনি বলেন, দলের স্বার্থে সকল দ্বিধাদ্বন্দ্ব ভুলে গিয়ে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী কক্সবাজারের প্রতি সুদৃষ্টি দিয়ে কক্সবাজারে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছেন। এসব প্রকল্পে ইতিমধ্যে হাজার হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করা হয়েছে। তিনি কক্সবাজারকে প্রাচ্যের পর্যটন রাজধানী হিসাবে গড়ে তুলার মহাপরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন। 

সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন মোস্তাক আহমদ চৌধুরী, সালাহ উদ্দিন আহমদ সিআইপি, অধ্যাপিকা এথিন রাখাইন, রেজাউল করিম, আশেক উল্লাহ রফিক এমপি, সায়মুম সরওয়ার কমল এমপি, লে. কর্নেল (অব.) ফোরকান আহমদ, মাহাফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটন, কানিজ ফাতেমা আহমদ এমপি, মাহবুবুল হক মুকুল, অ্যাডভোকেট রনজিত দাশ, মাহবুবুর রহমান চৌধুরী, আবদুর রহমান বদি, শফিউল আলম চৌধুরী, কায়সারুল হক জুয়েল, রহিম উদ্দিন, হামিদা তাহের, জহিরুল ইসলাম সিকদার, সোহেল আহমদ বাহাদুর, তাহমিনা চৌধুরী লুনা, এস এম সাদ্দাম হোসেন, আজিজুর রহমান চৌধুরী প্রমুখ। 

Live TV

আপনার জন্য প্রস্তাবিত