রাজশাহীর বাগমারায় উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সংবর্ধনা প্রদান ও আলোচনা সভা

1231

Published on ডিসেম্বর 17, 2020
  • Details Image

রাজশাহীর বাগমারায় উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সংবর্ধনা প্রদান ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক বলেছেন, ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস বাঙ্গালী জাতির একটি গৌরবের দিন। যাঁদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে আমরা আজ স্বাধীন। আজ তাদের শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি। যে সকল মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হয়েছেন এবং যে সকল মা- বোনের সমভ্রমের বিনিময়ে পেয়েছি স্বাধীন দেশ ও লাল সবুজের পতাকা তাদের ঋণ কোনদিন শোধ করা যাবে না। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যে স্বপ্ন নিয়ে দেশ স্বাধীন করেছেন তাঁর সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে হবে। যারা দেশের স্বাধীনতার জন্য জীবন দিয়েছেন তাঁরা সারা জীবন সূর্য সন্তান হিসেবে দেশের মানুষের মাঝে বেঁচে থাকবে।

স্বাধীনতার চেতনাকে ধারণ করে সত্য ও ন্যায়ের পথে দেশ গড়তে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশের কল্যাণে কাজ করে যাওয়ার আহ্বান জানান তিনি। বুধবার সকাল সাড়ে ১০ টায় বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর কমপ্লেক্স মিলনায়তনে উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত মহান বিজয় দিবসে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রধান অতিথি আরো বলেন, দেশে মুক্তিযোদ্ধাদের যাচাই-বাছাই কার্যক্রম শুরু হয়েছে। প্রকৃত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের শনাক্ত করতেই এই উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। তবে অনেক রাজাকার ও স্বাধীনতা বিরোধীরা গোপনে মুক্তিযোদ্ধা হয়েছে। যারা স্বাধীনতা বিরোধী রাজাকার আলবদর তাদের তালিকা আগে তৈরি করতে হবে। তারাই প্রকৃত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্ধে সর্বদায় ষড়যন্ত্র করে থাকে। রাজাকার আলবদর মুক্তিযোদ্ধা হয়ে তাদের সন্তানদের বিভিন্ন স্থানে চাকুরীর ব্যবস্থা করে দিয়েছে। তাদের কারনে আজ প্রকৃত বীর মুক্তিযোদ্ধাগন বিপাকে পড়েছেন। তাই তাদের তালিকা সঠিক ভাবে তৈরি করে আইনের আওতায় আনতে হবে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার আবুলের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা চেয়ারম্যান অনিল কুমার সরকার, উপজেলা আ’লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি, ভবানীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আব্দুল মালেক মন্ডল, সহ-সভাপতি মতিউর রহমান টুকু, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আলী খাজা এম এ মজিদ, রফিকুল ইসলাম।

উক্ত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। পরে ৪শত ৫০ জন মুক্তিযোদ্ধাকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। সেই সাথে বাগমারা আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হকের পক্ষ থেকে একটি করে শীতবস্ত্র উপহার প্রদান করা হয়।
এরআগে উপজেলা আ’লীগের উদ্যোগে দলীয় কার্যালয় বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর কমপ্লেক্সে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়।

পরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানানো হয়। মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ সকল শহীদদের আত্মার শান্তি কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া পরিচালনা করেন উপজেলা আ’লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওঃ হাফিজুর রহমান।

Live TV

আপনার জন্য প্রস্তাবিত