ঝিনাইদহে ৫ হাজার পরিবার পেলো খাদ্য সামগ্রী

974

Published on এপ্রিল 20, 2020
  • Details Image

করোনা ভাইরাস সংক্রামণ মোকাবেলায় হতদরিদ্র, ঘরবন্দী কর্মহীন পাঁচ হাজার পরিবারের মাঝে ব্যক্তিগত উদ্যোগে প্রথম ধাপে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করছেন জাতীয় সংসদ সদস্য ঝিনাইদহ-৩ (কোটচাঁদপুর-মহেশপুর) এ্যাড. শফিকুল আজম খাঁন চঞ্চল।

২৬ মার্চ হতে দুই উপজেলার সকল ইউনিয়নের মানুষ হোম কোয়ারেন্টাইন নির্দেশনা মেনে বাড়িতে অবস্থান করছেন। ফলে খেটে খাওয়া মানুষ খাদ্য সংকটে রয়েছেন। এসব খেটে খাওয়া মানুষের মধ্যে দুই উপজেলার ১৭ টি ইউনিয়ন ও দুইটি পৌরসভার মানুষকে এমপি মহোদয় নিজস্ব উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করে যাচ্ছেন। ইতিমধ্যে তিনি কোটচাঁদপুর উপজেলার কোটচাঁদপুর পৌরসভা, সাফদারপুর ও বলুহর, কুশনা ও এলাঙ্গী ইউনিয়ন, মহেশপুর উপজেলার ফতেপুর, নাটিমা, মান্দারবাড়ীয়া, যাদবপুর, আজমপুর,পান্তাপাড়া ও স্বরুপপুর ইউনিয়নে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ সম্পন্ন করেছেন এবং বাকি ইউনিয়ন গুলো অতিদ্রুত বিতরণ কার্যক্রম সম্পন্ন করা হবে বলে জানা যায়।

সারাদিন ব্যাপী এমনকি রাতেও বাড়ি বাড়ি যেয়ে তিনি নিজ হাতে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ ও মানুষকে সচেতন হওয়ার তাগিদ দিয়ে যাচ্ছেন। এমপি মানুষের বাড়ি বাড়ি যেয়ে ত্রাণ দেওয়ার পাশাপাশি শ্রমজীবি ও দিনমজুর ভ্যান-রিক্সা শ্রমিক ইউনিয়ন, মটর শ্রমিক ইউনিয়নসহ বিভিন্ন পেশাজীবি সংগঠনের অসহায় কর্মহীন মানুষের মাঝেও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করছেন।

এসময় তার সাথে উপস্থিত থাকছেন দুই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি,সাধারণ সম্পাদক, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ সকল ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীবৃন্দ। আমরা আরও জানতে পেরেছি প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী তিনি দল মত নির্বিশেষে সকলের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করছেন ।

এমপি শফিকুল আজম খাঁন বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশব্যাপী নোভেল করোনাভাইরাস সংক্রামণ মোকাবেলায় যে ৩১ দফা নির্দেশনা দিয়েছেন, তা আমাদের সকলকে অনুসরণ করে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে নিজ নিজ বাসা,বাড়িতে অবস্থান করতে হবে। কিন্ত এ অবস্থায় সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষেরা যাতে অভুক্ত না থাকে সেজন্য প্রত্যেকের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছি। আমার নির্বাচনী এলাকায় একজনও না খেয়ে দিনাতিপাত করবে না।’

তিনি আরও বলেন, যতদিন পর্যন্ত হতদরিদ্র মানুষগুলো আয় রোজগারে যেতে পারবেন না ততদিন পর্যন্ত খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রাখাবো আমার সর্বোচ্চ সামর্থ্য অনুযায়ী।

Live TV

আপনার জন্য প্রস্তাবিত