চট্টগ্রামে কর্মহীন মানুষের পাশে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক

4538

Published on মে 18, 2020
  • Details Image
  • Details Image
  • Details Image
  • Details Image

করোনা সংক্রমণের কারনে উদ্ভুত সংকট মোকাবেলায় নিম্নবিত্ত, কর্মহীন অসহায় মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ.জ.ম. নাছির উদ্দীন।

করোনার প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে দেশব্যাপী চলছে সাধারণ ছুটি। এতে কর্মহীন হয়ে পড়েছে লাখ লাখ মানুষ। কর্মহীন ও দরিদ্র এসব মানুষের জন্য সহায়তার হাত বাড়িয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ব্যক্তিগতভাবে নগরীর শত শত কর্মহীন পরিবারের কাছে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিয়েছেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ.জ.ম. নাছির উদ্দীন।

নিম্নবিত্ত, হতদরিদ্র ও মধ্যবিত্ত ১১৫০০ পরিবারে  খাদ্য সহায়তা প্রদান চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক। ২৫০ দরিদ্র মুক্তিযোদ্ধার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করেছেন। ২৭ মার্চ থেকে ১৭ এপ্রিল পর্যন্ত পর্যন্ত নগরের খেটে খাওয়া মানুষ, দিনমজুর, রিকশা/ ভ্যান চালক এবং ভিক্ষুকদের মাঝে প্রায় ২০ লক্ষ টাকা নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করেছেন। চট্টগ্রাম বন্দরের ১৫০০ শ্রমিককে খাদ্য সহায়তা প্রদান করেছেন। নিজের মালিকানাধীন ৪টি প্রতিষ্ঠানের ১৩৩২ জনকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করেছেন। সিটি কর্পোরেশনে কর্মরত ৫৫০ জন গাড়ী চালকের মাঝে ব্যক্তিগত তহবিল হতে খাদ্য সহায়তা প্রদান করেন তিনি। শুক্রবার (১ মে) সকালে কাজির দেউড়ি বাজার সংলগ্ন চত্বরে বাংলাদেশ লেবার ফেডারেশন (বিএলএফ) চট্টগ্রাম নগর শাখার ৩৫০জন শ্রমিক-কর্মচারীর মধ্যে মেয়র ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ইফতার ও সেহেরি সামগ্রী উপহার দেন। রেলওয়ে শ্রমিকদের ৫০০ পরিবারে ত্রাণ সহায়তা দিয়েছেন।  বাংলাদেশ নির্মাণ শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশন এর ৬ শ পরিবারের মধ্যে ভোগ্যপন্য উপহার সামগ্রী বিতরণ করেন। আগ্রাবাদ সিঙ্গাপুর-ব্যাংকক মার্কেট দোকান কর্মচারী  ৫ শ পরিবারের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ করেন।  

খাদ্য সহায়তার পাশাপাশি অন্যান্য সচেতনতা মুলক কাজেও এগিয়ে এসেছেন আ.জ.ম. নাছির উদ্দীন।

কোভিড-১৯ সংক্রমণের শুরু থেকেই কাজ করছেন আ.জ.ম. নাসির উদ্দিন। জনসাধারনকে সচেতন করতে মাইক হাতে নগরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে মাইকিং এবং নগরের বিভিন্ন সড়ক, হাসপাতাল ও জনসমাগম হয় এমন স্থানে নিজ হাতে জীবানুনাশক পানি ছিটিয়ে জনসাধারনকে সচেতন করার কাজ করে যাচ্ছেন তিনি।

বেসরকারি ক্লিনিক ও ডায়াগনোস্টিক সেন্টার মালিকের সাথে সমন্বয় করে নগরের খুলশী এলাকায় পরিত্যক্ত হলি ক্রিসেন্ট হাসপাতালকে স্পেশালাইজড করোনা হাসপাতাল হিসেবে চালুকরণের উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন চট্টগ্রাম আওয়ামী লীগের এই নেতা।

বেসরকারি সেবা সংস্থা আল মানহিল ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় বিনামূল্যে কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত রোগী ও মৃতদেহ পরিবহনের নিমিত্তে সার্বক্ষণিক দুটি অ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা এবং লাশ দাফনের জন্য প্রশিক্ষিত একটি দল নিজ উদ্যোগে প্রস্তুত করেছেন তিনি।

এছাড়াও নগরের অভুক্ত কুকুরদের খাবার সরবরাহ করার ব্যবস্থা নিয়েছেন তিনি ।

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ.জ.ম. নাছির উদ্দীন বলেন, করোনাভাইরাস বৈশ্বিক মহামারিতে পরিণত হয়েছে। এর প্রভাবে বাংলাদেশও সংকটময় ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। মুক্তিযোদ্ধারা যেভাবে একাত্তর সালে মাতৃমুক্তিপণে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন একইভাবে করোনাভাইরাস মোকাবেলায়ও ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।

আপদকালীন সময়ে সরকারী ত্রাণ সামগ্রী অভুক্তদের ঘরে ঘরে দ্রুত পৌঁছে যায় সে ব্যাপারে ত্রাণব্যবস্থাপনার সাথে সম্পৃক্তদের দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করার আহ্বান জানান মেয়র।

তিনি চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত সকল চিকিৎসকদের এই দুর্যোগকালীন মূহুর্তে মানবতার সেবায় এগিয়ে আসার আহবান জানান। যত বেশি পরীক্ষাগার হবে ততবেশি রোগ নির্ণয় সহজ হবে এবং আইসোলিয়েশন সেন্টারের মাধ্যমে রোগ নিরাময় সম্ভব হবে জানান চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

Live TV

আপনার জন্য প্রস্তাবিত