দিনাজপুরে ছাত্রলীগের বিনামুল্যের সবজি বাজার

1104

Published on এপ্রিল 24, 2020
  • Details Image

ছোট একটি কাঠের তৈরি চকি। যেখানে সাজানো রয়েছে পোটল, পেঁয়াজ, রসুন, করলা, বেগুন, আলু, কাঁচামরিচ, মিষ্টি কুমড়া, পুঁইশাক, ডাটাসহ সংসারের সবজি জাতীয় নিত্যপণ্যের দোকান। গরিব, অসহায় দুস্থ মানুষের যাদের যেটি প্রয়োজন তারা ওখান থেকে একে একে নিয়ে যাচ্ছে। তবে এর জন্য কোনো মূল্য পরিশোধ করার প্রয়োজন হচ্ছে না।

আসন্ন রমজান উপলক্ষে করোনাভাইরাসের কারণে লকডাউন চলা অবস্থায় কর্মহীন হয়েপড়া শ্রমজীবী, অসহায় ও দুস্থ মানুষের জন্য দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ চালু করেছে এমনই এক মানবতার দোকান। উদ্যোক্তারা জানান আগামী ১ মাস ধরে এই মানবতার দোকানের কার্যক্রম অব্যহত থাকবে।

শুক্রবার (২৪ এপ্রিল) সকালে উপজেলা নবাবগঞ্জ শহরে ‘মানবতার দোকান’টি উদ্বোধন করা হয়। স্থানীয় সংসদ সদস্য এমপি শিবলী সাদিকের সার্বিক দিক নির্দেশনায় উপজেলা ছাত্রলীগ এটির আয়োজন করেন। উপজেলার রামপুর বাজার মোড় এলাকায় মানবতার দোকানটির অবস্থান।

সরেজমিনে শুক্রবার সকালে ‘মানবতার দোকান’টিতে গিয়ে দেখা যায়, সেখানে সারিবদ্ধভাবে বেশ কিছু মানুষ দাঁড়িয়ে আছে । কাঠের তৈরি চকির উপর সাজানো রয়েছে পোটল, পেঁয়াজ, রসুন, করলা, বেগুন, আলু, কাঁচা মরিচ, মিষ্টি কুমড়া, ডাটাসহ সংসারের সবজি জাতীয় নিত্যপণ্যে। দাঁড়িয়ে থাকা মানুষগুলোর যার যেটি প্রয়োজন পাশে থাকা ছাত্রলীগের কর্মীরা ব্যাগে ওজন ছাড়ায় হাতের মুঠোভরে ঢুকিয়ে দিচ্ছেন। এতে কোনো ক্রেতাদের কাছ থেকে নেওয়া হচ্ছে না কোনো টাকা।

সেখানে বাজার করতে আসা কফিল উদ্দিনের (৬২) সাথে। তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, দেশে করোনাভাইরাস থাকার পুলিশ প্রশাসন মাইকিং করে ঘরে থাকার কথা বলছেন। কিন্তু ঘরে যে খাবার ছিল সেটাত অনেক আগেই শেষ হয়ে গিয়েছে। তাই ছাত্রলীগের বিনা পয়সার এই সবজি আমার এখন এক মাত্র ভরসা।

তিনি বলেন, মানবতার দোকান থেকে আমি পুঁইশাক, পটল, করলা, মিষ্টিকুমড়া ও আলু নিয়েছি। এতে তারা আমার কাছ থেকে কোনো টাকা নেয়নি।

স্থানীয় ব্যবসায়ীরা বলেন, মানবতার দোকানটিতে প্রতিদিন কর্মহীন শ্রমজীবী অসহায় মানুষগুলোর এক মাত্র ভরসা হয়ে উঠবে। এতে অনেক মানুষের কষ্ট কিছুটা হলেও মুক্ত হবে। এই এলাকায় আগে কখন এমন উদ্যোগ কেউ নেয়নি। আসলেই এটি ‘মানবিকতার জন্য মানবতার দোকান’।

জানতে চাইলে মানবতার দোকানের তত্ত্বাবধায়ক ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. শাহিনুর ইসলাম সবুজ কালের কণ্ঠকে বলেন, মরণব্যাধী করোনাভাইরাস বিশ্বের মানুষকে ঘরেবন্দি করে ফেলেছে। শ্রমজীবীরা কর্মহীন হয়ে পড়েছে। তাই অসহায় মানুষের মুখে আলো ফোটানোই এই মানবতার দোকানের প্রধান উদ্দেশ্য।

তিনি বলেন, ইতিমধ্যে সংসদ সদস্য চার উপজেলার ৪০ হাজার শ্রমজীবী কর্মহীন, অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন।

এ সময় উপজেলা শাখার সহ-সভাপতি জিল্লুর রহমান জনি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আরিফুল জামান জনি, যুবলীগের বাজার ওয়ার্ড কমিটির প্রচার সদস্য মাহাবুর রহমানসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

Live TV

আপনার জন্য প্রস্তাবিত