বাঙালির গৌরবের মাসঃ আজহার মাহমুদ

1603

Published on মার্চ 23, 2018
  • Details Image

 

এই মাস বাঙালি জাতির স্বাধীনতার মাস। এই মাস বাঙালি জাতির গৌরবের মাস। এই মাস জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মের মাস। ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ বাংলার বুকে আসেন সর্বকালের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। যার জন্ম না হলে হয়তো বাঙালি জাতি স্বাধীনতা অর্জন করতে পারত না। যার বজ্রকণ্ঠের ভাষণ শুনে ৭ কোটি বাঙালির বুকে সাহস এসেছে, তার সেই ঐতিহাসিক ভাষণের মাসও এই মার্চ মাস। এই মাসের গুরুত্ব অপরিসীম। বঙ্গবন্ধুর সেই ভাষণের মাধ্যমে সেদিন নিরস্ত্র বাঙালির বুকেও পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর চেয়ে বেশি সাহস এসেছিল। এই একটি ভাষণে বাংলার মানুষ স্বাধীনতা অর্জনের জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েছিল পাকিস্তানি নরপিশাচদের ওপর। এই মাসের মান এবং মর্যাদা অন্যান্য মাসের চেয়ে আলাদা এবং বেশি। আজ বঙ্গবন্ধুর ভাষণ সারা বিশ্বের কাছে একটি সম্পদ, যা আমাদের গর্ব। এই ভাষণ শুনে এখনো বাংলার মানুষের ভেতর সাহস জেগে ওঠে। বাংলার মানুষের প্রেরণা এই ভাষণ। অথচ এত বড় গৌরবের মাস হলেও আমাদের ভেতর নেই কোনো সেই গৌরবের আমেজ। আমরা এই স্বাধীনতার মাসেও দেখছি অপকর্ম আর অন্যায়। স্বাধীনতার মাসকে শ্রদ্ধা করছে না অনেকে। আমাদের কথায় সেটি ভেসে না উঠলেও কাজেকর্মে তার প্রমাণ মিলছে প্রতিনিয়ত।

 

এ ছাড়া এই মাসে রয়েছে বিশ্ব শিশু দিবস। বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনের সঙ্গে রয়েছে জাতীয় শিশু দিবস। কোমলমতি শিশুদের বঙ্গবন্ধু একটু বেশিই ভালোবাসতেন।

 

আমাদের দেশে এখনো শিশু নির্যাতন বন্ধ হয়নি, যা শুধু শিশুদের জন্য নিয়, বাংলাদেশের জন্যও বড় দুঃখের বিষয়। শিশুদের জন্য বর্তমান সরকারের আরও এগিয়ে আসার আহ্বান রইল। স্বাধীন দেশে তারা যেন স্বাধীন থাকে সেই চাওয়াই তাদের মূল চাওয়া। শিশুরা যেন বঙ্গবন্ধুকে ভালোভাবে চিনতে পারে এবং জানতে পারে সেই ধরনের ব্যবস্থাও নিতে হবে প্রশাসনসহ সবার। সেই শিশুটি পরবর্তীকালে হয়ে ওঠেন নির্যাতিত-নিপীড়িত বাঙালির মুক্তির দিশারী। যিনি বাঙালির অবিসংবাদিত নেতা। বঙ্গবন্ধু বিশ্বাস করতেন আজকের শিশুরাই আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। ভবিষ্যতে দেশ গড়ার নেতৃত্ব দিতে হবে আজকের শিশুদের। তাই শিশুরা যেন সৃজনশীল মুক্তমনের মানুষ হিসেবে গড়ে ওঠে, তিনি সব সময় সেটাই চাইতেন। তাই বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনকে শিশু দিবস হিসেবে পালন করা খুবই তাৎপযপূর্ণ। তাই বলা যায়, এই মাস বাঙালির জন্য অনেক গৌরবময় মাস। আমাদের সবার প্রয়োজন এই মাসকে শ্রদ্ধা এবং সম্মান করা। এই মাসের মর্যাদা ও গুরুত্ব সম্পর্কে অন্যদের অবহিত করা। বাঙালি জাতির প্রাপ্তির মাস এই মাস। মহান নেতার জীবন ও আদর্শ অনুসরণে এ দেশের শিশুদের যথাযোগ্য সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তোলাই হোক আমাদের সবার অঙ্গীকার।

 

সৌজন্যেঃ আমাদের সময় 

Live TV

আপনার জন্য প্রস্তাবিত