কর্ম ও বাসস্থান

940

Published on ডিসেম্বর 9, 2018
  • Details Image

ভুমি ও আবাসন

  • মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ‘সবার জন্য বাসস্থান’ যোগানোর প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বর্তমান সরকারের গুচ্ছগ্রাম প্রকল্পের মাধ্যমে ৫০ হাজার গৃহহীন ভূমিহীন পরিবারকে পুনর্বাসন করার লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে।
  • গুচ্ছগ্রাম (ক্লাইমেট ভিক্টিমস রিহ্যাবিলিটেশন) প্রকল্পের আওতায় বর্তমান সরকার ১৬ হাজার ১০৩টি গৃহহীন ভূমিহীন পরিবারের প্রতিটি পরিবারকে ৪-৮ শতক খাসজমির কবুলিয়াত দলিল, ৩০০ বর্গফুটের দুই কক্ষবিশিষ্ট ঘর, নলকূপ, মাল্টিপারপাস হল, আর্থসামাজিক উন্নয়নের জন্য আয়বর্ধক প্রশিক্ষণ ও ১৫ হাজার টাকা ক্ষুদ্রঋণ প্রদানসহ পুনর্বাসন করা হয়েছে। চলতি ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে ২৬ হাজার ভূমিহীন পরিবারকে পুনর্বাসনের লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে।
  • কৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত নীতিমালা ১৯৯৭ এর আওতায় মাত্র ১ টাকা প্রতীকী মূল্যে ভূমিহীনদের সর্বোচ্চ ১ একর কৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত প্রদান করা হয়।
  • বর্তমান সরকারের সারাদেশে ২ লক্ষ ৩৮ হাজার ৩৮টি ভূমিহীন পরিবারকে ১ লক্ষ ১৬ হাজার ৩০৩ দশমিক ৪৩৪৮ একর কৃষি খাসজমি বন্দোবস্ত প্রদান।
  • ভাষাণটেক পুনর্বাসন প্রকল্পের আওতায় সরকারি জমিতে ছিন্নমূল বস্তিবাসী ও নিম্নবিত্তদের জন্য নির্মিত বহুতল বিশিষ্ট ভবনে ২০১৬টি ফ্লাট নির্মিত। এর মধ্যে ৫৯৬ জন বস্তিবাসীসহ ১৭৯৪টি ফ্লাটে সুবিধাভোগীগণ বসবাস করছেন।
  • ২৮ হাজার ৮৪৮ দশমিক ৯১ একর জমিসহ সর্বমোট ৩৫ হাজার ৫৩৫ দশমিক ৩০৬৬ একর অকৃষি খাসজমি ইতোমধ্যে বন্দোবস্ত প্রদান করা হয়েছে।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়

  • বর্তমান সরকারের ঐকান্তিক ও সফল শ্রম কূটনৈতিক প্রচেষ্টায় বিগত ১০ বছরে প্রায় ৫৭ লক্ষ ৫৪ হাজার কর্মী কর্মসংস্থানের উদ্দেশ্যে বিদেশ গমন করেছে।
  • অভিবাসনে পিছিয়ে থাকা ৪২ টি জেলা চিহ্নিতকরণ পূর্বক এসকল জেলাকে অগ্রাধিকার দিয়ে বৈদেশিক কর্মসংস্থান বৃদ্ধির উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।
  • বর্তমানে বিদেশে গমনকারী নারী কর্মীর সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। বিগত ১০ বছরে জানুয়ারি ২০০৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিদেশে নারী কর্মী গমনের সংখ্যা ৫ লক্ষ ৭৩ হাজার ৬৩ জন।
  • বিদেশে কর্মরত নারী কর্মীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা ও অভিযোগ দ্রæত নিষ্পত্তির জন্য বিএমইটিতে একটি সেল গঠন করা হয়েছে। মন্ত্রণালয় ও দপ্তর/সংস্থায় অনলাইনে অভিযোগ ব্যবস্থাপনা চালু করা হয়েছে। তাছাড়া, প্রবাসবন্ধু কল সেন্টার (+৮৮ ০১৭৮৪ ৩৩৩ ৩৩৩, +৮৮ ০১৭৯৪ ৩৩৩ ৩৩৩, +৮৮ ০২-৯৩৩৪৮৮৮) স্থাপনের মাধ্যমে বিদেশগামী ও প্রবাসী কর্মীদের অভিযোগ/সহযোগিতার বার্তা জানাতে পারছেন।
  • বিগত জোট সরকারের আমলে যেখানে বিশ্বের মাত্র ৯৭টি দেশে কর্মী প্রেরণ করা হতো, সেখানে নতুন আরও ৬৮টি দেশে কর্মী প্রেরণসহ বর্তমানে এই সংখ্যা ১৬৫টি দেশে উন্নীত করতে সক্ষম হয়েছে।
  • মালয়েশিয়া সরকারের সাথে বাংলাদেশের অব্যাহত শ্রম কূটনৈতিক প্রচেষ্টার ফলে মালয়েশিয়ার সরকার সেপ্টেম্বর ২০১৬ মাসে নির্মাণ শিল্প, কৃষি সেক্টরসহ পোলট্রি, মাইনিং, কার্গো হ্যান্ডেলিং এবং পর্যটন সেক্টরে কর্মী গ্রহণে বাংলাদেশকে সোর্স কান্ট্রি হিসেবে ঘোষণা করেছে। ফলশ্রুতিতে বাংলাদেশি কর্মীদের জন্য মালয়েশিয়ায় অভিবাসনের দ্বার উন্মোচিত হয়েছে।
  • মালয়েশিয়া সরকার জি-টু-জি প্লাস পদ্ধতিতে কর্মী নেওয়ার বিষয়ে বাংলাদেশের সাথে ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ তারিখে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছে।
  • ২০০৯ হতে ২০১৭ পর্যন্ত প্রবাসে মৃত ২১,৬৯২ জন কর্মীর পরিবারকে মৃতদেহ পরিবহন ও দাফন ব্যয় বাবদ ৭২ কোটি ৮১ লক্ষ ৬৩ হাজার টাকা আর্থিক সাহায্য দেয়া হয়েছে।
  • ২০১০ হতে ২০১৫ সাল পর্যন্ত ৬৬ জন প্রবাসী বাংলাদেশীকে সিআইপি সম্মাননা প্রদান করা হয়।
  • ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড হতে প্রবাসী কর্মীর মেধাবী সন্তানদের লেখাপড়ায় উৎসাহ যোগাতে ২০১২ সাল থেকে সম্পূর্ণ ইলেকট্রনিক পদ্ধতিতে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করা হচ্ছে।
  • প্রবাসী কর্মীদের কল্যাণার্থে ২০১০ সালে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক প্রতিষ্ঠা বর্তমান সরকারের অন্যতম সাফল্য।

শ্রম ও কর্মসংস্থান

  • শিশু শ্রম নিরসন নীতিমালা-২০১০, বাংলাদেশ শ্রমনীতিমালা-২০১২, বাংলাদেশ শ্রম আইন সংশোধন-২০১৩, জাতীয় পেশাগত স্বাস্থ্য ও সেইফটি (ওএসএইচ) নীতিমালা-২০১৩ গৃহকর্মী সুরক্ষা ও কল্যাণ নীতি-২০১৫ প্রণয়ন করা হয়েছে। এছাড়া বর্তমানে ইউপিজেড আইন এবং শ্রম আইন সংশোধনের কাজও শেষ পর্যায়ে।
  • ২০১৩ সালের রানা প্লাজা’র মর্মান্তিক ট্রাজেডির পরে তৈরী পোশাক খাতে নতুন যুগের সুচনা হয়েছে।
  • শ্রমিকের পেশাগত অসুখের চিকিৎসার জন্য পিপিপি’র মাধ্যমে প্রায় তিন’শ তিন কোটি টাকা ব্যয়ে নারায়ণগঞ্জে দেশের প্রথম তিন’শ শয্যার পেশাগত বিশেষায়িত হাসপাতাল নির্মাণের কাজ শিখগিরই শুরু হবে। গত ২২ জুলাই শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় এবং এএফসি হেলথকেয়ার ও ভারতের ফোর্টিজ হেলথ লিঃ এর মধ্যে হাসপাতাল নির্মানের বিষয়ে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।
  • জাতীয় পেশাগত স্বাস্থ্য ও সেইফটি(ওএসএইচ) নীতিমালা-২০১৩ প্রণয়ন করা হয়েছে। ২০১৬ থেকে ওএসএইচ ডে পালন করা হচ্ছে। রাজশাহীতে পাঁচ একর জমির ওপর নিজস্ব জায়গায় পেশাগত স্বাস্থ্য ও সেইফটি- ওএসএইচ একাডেমি নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

Live TV

আপনার জন্য প্রস্তাবিত