আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক সম্পর্ক উন্নয়নের মাইলফলক

598

Published on ডিসেম্বর 9, 2018
  • Details Image

বৈদেশিক সম্পর্ক উন্নয়নে সাফল্য

  • ২০১১ সালে বাংলাদেশ ও ভারত-দু’দেশের সরকার কর্তৃক স্থল সীমানা চুক্তি ১৯৭৪-এর প্রটোকল স্বাক্ষর এবং ২০১৫ এ স্থল সীমানা চুক্তির অনুসমর্থন আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুদীর্ঘ প্রচেষ্টারই সুফল। ইন্সট্রুমেন্ট অব রেটিফিকেশন এবং লেটার অব মোডালিটিস স্বাক্ষরের মাধ্যমে তৎকালীন ১১১টি ভারতের ছিটমহল বাংলাদেশের এবং আমাদের ৫১টি ছিটমহল ভারতের অংশ হয়ে যায়।
  • ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী’র বাংলাদেশ সফর ৬-৭ জুন ২০১৫  বাংলাদেশ সফর করেন। এ সফরে সর্বমোট ২২টি দ্বিপাক্ষিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।
  • মৈত্রী এক্সপ্রেসের ঢাকা ও কলকাতায় প্রান্তীয় কাস্টমস ও ইমিগ্রেশন ব্যবস্থা চালু হয়েছে। খুলনা-কলকাতা ট্রেন সার্ভিস চালু হয়েছে।
  • সফরকালে আসানসোলে অবস্থিত কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় এক বিশেষ সমাবর্তন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে সম্মানসূচক ডক্টর অব লিটারেচার (ডি.লিট) উপাধিতে ভূষিত করে।
  • ভারত থেকে ভেড়ামারা-বহরমপুর  গ্রিডের মাধ্যমে ও ত্রিপুরার পালাটানা বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে বর্তমানে ৬৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি করা হচ্ছে।
  • ২০১৭ সালে শুধুমাত্র সৌদি আরবে রেকর্ড সংখ্যক ৫৫১,৩০৮ জন বাংলাদেশী নিয়োগলাভ করেছে।
  • মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুসমূহের সাথে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা, নিরাপত্তা, বাণিজ্য, জনশক্তি ও বিনিয়োগ সংক্রান্ত ৬২টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। ২০০৯ ২০১৭ মেয়াদে মধ্য প্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের সাথে ৬২ টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে।
  • গণচীনের রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশ সফরকালে দু’দেশের মধ্যে ২৭টি চুক্তি/সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে।
  • ২০১৪ সালে চীন সফরকালে ২০ দফা সম্বলিত একটি যৌথ ইশতেহার এবং ৬টি দলিল স্বাক্ষরিত হয়।
  • ২০১৪ সালে জুলাই মাসে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বৃটেনের প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণে যুক্তরাজ্য সফর করেন।
  • রাশিয়ান ফেডারেশন-এর সাথে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহযোগিতা জোরদার করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
  • মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর রুশ ফেডারেশনে সফরের মাধ্যমে বাংলাদেশ ও রাশিয়ার মধ্যে ৩টি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে যার মধ্যে রয়েছে ২৪০০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প চুক্তি, পারমানবিক শক্তি বিষয়ক একটি তথ্য কেন্দ্র স্থাপন সংক্রান্ত চুক্তি, সামরিক সরঞ্জাম ক্রয়ের চুক্তি এবং ৬টি সমঝোতা স্মারক।
  • ২০১২ সালে বেলারুশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ সফরকালে শিক্ষা, কৃষি, আইন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, সামরিক বিনিয়োগ, উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ বিষয়ে মোট ১২টি চুক্তি/ সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়।
  • ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট মি. এমানুয়েল ম্যাক্রঁ, জাতিসংঘ মহাসচিব মি. এন্টনিও গুটেরেস এবং বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট মি. জিম ইয়ং কিম -এর যৌথ আমন্ত্রণে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ১২ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখে প্যারিসে অনুষ্ঠিত ‘One Planet Summit’-এ অংশগ্রহণ করেন।
  • ঢাকায়  BIMSTEC এর স্থায়ী সচিবালয় স্থাপন।
  • সার্কের অধীনে ঢাকায় South Asian Regional Standards Organization (SARSO) এর সদর দফতর স্থাপন।
  • ৮-৯ জুন ২০১৮ তারিখে কানাডায় অনুষ্ঠিত G7 Outreach Leaders Programme -এ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অংশগ্রহণ করেন।
  • মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বৃটেনের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী David Cameron -এর আমন্ত্রণে জুলাই ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত প্রথম Girl Summit -এ অংশগ্রহণ করেন।
  • ‘ব্লু ইকোনমি’ বিষয়ে জ্ঞান/অভিজ্ঞতা অর্জনের  লক্ষ্যে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে গত ১-২ সেপ্টেম্বর ২০১৪ তারিখে ঢাকায় “International Workshop on Blue Economy” শীর্ষক আন্তর্জাতিক কর্মশালার অনুষ্ঠিত হয়।
  • ২০১০ সালে জাতিসংঘের ৬৫তম অধিবেশন চলাকালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সহ¯্রাব্দ উন্নয়ন+১০ সম্মেলনে সহসভাপতিত্ব করেন।
  • ২০১২ সালে অনুষ্ঠিত ৬৭তম জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদ অধিবেশনে ‘জনগণের ক্ষমতায়ন ও উন্নয়ন’ মডেলটি একটি নতুন রেজ্যুলশন আকারে সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়।
  • ৬৮তম অধিবেশনের সময় জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ আমন্ত্রণে Global Education First Initiative অন্যতম শীর্ষনেতা হিসেবে অংশগ্রহণ করেন এবং এমডিজি সংক্রান্ত Follow up on Efforts Made Towards Achieving the MDG উচ্চ পর্যায়ের বিশেষ অনুষ্ঠানে সহ-সভাপতিত্ব করেন।
  • নভেম্বর ২০১৬ তারিখে হাঙ্গেরির রাষ্ট্রপতি H.E. Mr. János Áder -এর বিশেষ আমন্ত্রণে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বুদাপেস্টে অনুষ্ঠিত Budapest Water Summit 2016-এ অংশগ্রহণ করে।
  • বর্তমান সরকার দায়িত্ব গ্রহণের পর Commonwealth Parliamentary Association (CPA)-এর নির্বাহী কমিটির চেয়ারপার্সন, Inter-Parliamentary Union (IPU)-এর প্রেসিডেন্ট, জাতিসংঘ মানবাধিকার কাউন্সিল, International Telecommunication Union (ITU) Council, The Convention on the Elimination of All Forms of Discrimination against Women (CEDAW)-কমিটি এবং International Mobile Satellite Organization (IMSO)-এর মহাপরিচালক পদে বাংলাদেশ নির্বাচিত হয়েছে। এ ছাড়াও বাংলাদেশ Member, UN South-South Steering Committee on Sustainable Development; President, UN High-level Committee on SouthSouth Cooperation; Chairman, UN Credential Committee; Chair, Global Fund for Development; Governing Body Member, International Labour Organisation Ges Vice-Chair, Executive Board, UN-Women পদে নির্বাচিত হয়েছে। এসব নির্বাচনের মধ্য দিয়ে বর্তমান সরকারের নেতৃত্বে বাংলাদেশের কূটনৈতিক সাফল্য ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত হয়েছে।
  • ২০১১ সালে বাংলাদেশ সফরকালে জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুন বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল বিশ্বের জন্য একটি ‘মডেল দেশ’ হিসেবে উল্লেখ করেন।
  • বাংলাদেশ ২০১৫ সালে অভিবাসন ও উন্নয়ন সম্পর্কিত বৈশ্বিক ফোরাম (GFMD) এর সভাপতি নির্বাচিত হয়।
  • Global Forum on Migration and Development (GFMD এর সভাপতি হিসেবে বাংলাদেশ গত ১০-১২ ডিসেম্বর ২০১৬ তারিখে ঢাকায় নবম এঋগউ শীর্ষ সম্মেলন আয়োজন করে।
  • জাতিসংঘের Millennium Development Goals (MDGs) অর্জনে উল্লেখযোগ্য সাফল্যের ধারাবাহিকতায় ২০৩০ অমবহফধ ভড়ৎ ঝঁংঃধরহধনষব উবাবষড়ঢ়সবহঃ প্রণয়নের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ বিশেষ ভূমিকা রেখেছে।
  • ১৬-১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬ তারিখে কানাডার মন্ট্রিয়েলে অনুষ্ঠিত গ্লোবাল ফান্ডের ৫ম রিপ্লেনিশমেন্ট সম্মেলনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন।
  • মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ মহাসচিবের উদ্যোগে সেপ্টেম্বর ২০১৬-এ অনুষ্ঠিত High Level Panel on Water এর একটি বিশেষ বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।
  • ২০১৬ সালের ডিসেম্বর মাসে বাংলাদেশ বিশ্বের প্রাচীনতম আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থা অরগানাইজেশন অভ আমেরিকান স্টেট (IGGm) এর স্থায়ী পর্যবেক্ষকের পদমর্যাদা লাভ করে।
  • World Economic Forum (WEF)-এর নির্বাহী চেয়ারম্যান Professor Klaus Schwab -এর বিশেষ আমন্ত্রণে ১৭-২০ জানুয়ারী ২০১৭ তারিখে সুইজারল্যান্ডের ডাভোস শহরে অনুষ্ঠিত WEF -এর ৪৭তম বার্ষিক সভায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব প্রদান করেন।
  • ১৭-১৮ ফেব্রæয়ারি ২০১৭ তারিখে জার্মানির মিউনিখে অনুষ্ঠিত ৫৩তম Munich Security Conference (MSC)-এ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অংশগ্রহণ করেন।

সমুদ্রসীমা নির্ধারণ

  • আন্তর্জাতিক আদালতের রায়ের মাধ্যমে ২০১২ সালে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার এবং ২০১৪ সালে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার সমুদ্রসীমানা নির্ধারণ সংক্রান্ত মামলার নিষ্পত্তি হয় এবং বঙ্গোপসাগরে সর্বমোট ১,১৮,৮১৩ বর্গ কিলোমিটার সমুদ্র এলাকার উপর বাংলাদেশের সার্বভৌম অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়।
  • গত পাঁচ বছরে বাংলাদেশ জাতিসংঘের সর্বোচ্চ সংখ্যক কমিটি, অঙ্গ সংস্থা ও ফোরামের পরিচালনা ও নীতিনির্ধারণী পর্ষদে সদস্যপদ লাভ করে যার মধ্যে ECOSOC, Human Rights Council, UNDP/ UNFPA, UNESCO, UN-Women, CEDAW, FAO, WHO, UNAIDS, UNEP, UN-HABITAT, IMO, ITU, UPU, ISBA, ILO, CEDAW উল্লেখযোগ্য।
  • মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিভিন্ন বিষয়ে তাঁর দূরদর্শী নেতৃত্বের ¯^ীকৃতি¯^রূপ আরও বেশ কিছু আন্তর্জাতিক পুরষ্কার ও সম্মানে ভূষিত হয়েছেন। এগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো: South-South Award (2011) ‘Champions of the Earth’, ‘Tree of Peace Award’, ‘Cultural Diversity Medal 2012’, ‘Global Women’s Leadership Award 2018’, Award for Humanitarian Leadership from Global Hope Coalition (2018), ‘IPS International Achievement Award’ from Inter Press Service for outstanding leadership (2018).

প্রশাসনিক সাফল্য

  • ২০০৮-০৯ হতে ২০১৭-১৮ অর্থবছর  পর্যন্ত পূর্বে বন্ধ হওয়া ৩টি মিশন পুনঃস্থাপনসহ মোট ১৯টি মিশন চালু করা হয়েছে।

রোহিঙ্গা ইস্যু

  • মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র বলিষ্ঠ সিদ্ধান্তে বাংলাদেশ প্রায় ১০ লাখের অধিক রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠিকে আশ্রয় দিয়েছে।
  • বাংলাদেশের এই মানবিক সিদ্ধান্ত বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত হয়েছে।
  • জাতিসংঘ মহাসচিব, বিশ্ব ব্যাংক প্রেসিডেন্টসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধান এবং সরকার প্রধান বাংলাদেশ সফর করেন।
  • বাংলাদেশ  রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধানের জন্য দ্বিপাক্ষিক এবং বহুপাক্ষিক প্রচেষ্ট চালিয়ে যাচ্ছে।

 বিবিধ

  • ISESCO কর্তৃক ঢাকা-কে ২০১২ সালের জন্য ‘এশীয় অঞ্চলের জন্য ইসলামী সংস্কৃতির রাজধানী’ হিসেবে ঘোষণা করা।
  • জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ই মার্চের ভাষণ ইউনেস্কোর ‘International Memory of the World Register’-এ ‘বিশ্বের গূরুত্বপূর্ণ দালিলিক ঐতিহ্য’ হিসেবে অন্তর্ভূক্ত হয়েছে।
  • মুক্তিযুদ্ধে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বিদেশী বন্ধুদের মুক্তিযুদ্ধ সম্মাননা প্রদান করা হয়েছে।

Live TV

আপনার জন্য প্রস্তাবিত